মানুষ ঘর থেকে বেরিয়ে এসেছে, সরকারের পতন সন্নিকটে : আমান

প্রকাশিত: আগস্ট ১১, ২০২২, ০৯:৩৬ রাত
আপডেট: আগস্ট ১১, ২০২২, ১০:০৫ রাত
আমাদেরকে ফলো করুন

স্টাফ রিপোর্টার, ঢাকা অফিস : বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির আহ্বায়ক আমান উল্লাহ আমান বলেছেন, জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদ জানাতে মানুষ ঘর থেকে বেরিয়ে এসেছে। বিএনপির আজকের সমাবেশ তার প্রমাণ। লক্ষ লক্ষ মানুষের উপস্থিতিতে সমাবেশ মহাসমাবেশে রূপ নিয়েছে। সুতরাং এই সরকার আর বেশিদিন ক্ষমতায় থাকতে পারবে না। তাদের পতন সন্নিকটে। 

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকারকে হটাতে বিএনপির নেতাকর্মীরা রাজপথে জীবন দিতে প্রস্তুত রয়েছে বলে জানান তিনি।

আজ বৃহস্পতিবার (১১ আগস্ট) বিকেলে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনের সড়কে এক সমাবেশে এসব কথা বলেন আমান। 

জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধিসহ দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি এবং পুলিশের গুলিতে নুরে আলম ও আব্দুর রহিম নিহতের প্রতিবাদে ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ বিএনপির উদ্যোগে এই সমাবেশ হয়। নয়াপল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে পাঁচটি ট্রাককে একত্রিত করে উন্মুক্ত মঞ্চ নির্মাণ করা হয়। দুপুর ২টায় শুরু হয়ে সমাবেশ শেষ হয় বিকাল ৬টার পর। ফকিরাপুলের মোড় থেকে কাকরাইল পর্যন্ত পুরো সড়ক ও ফুটপাতে হাজার হাজার নেতা-কর্মীর উপস্থিতিতে সমাবেশটি জনসমুদ্রে পরিণত হয়। 

ডাকসুর সাবেক ভিপি আমান বলেন, বিএনপির এই সমাবেশ শুধু সমাবেশ নেই, লক্ষ লক্ষ মানুষের উপস্থিতিতে তা মহাসমাবেশে রূপ নিয়েছে। জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদ জানাতে এবং ভোলায় পুলিশের গুলিতে নূর আলম ও আব্দুর রহিম হত্যার বিচারের দাবিতে ঢাকাবাসী ঘর থেকে বেরিয়ে এসেছে। সুতরাং সরকার আর বেশিদিন ক্ষমতায় থাকতে পারবে না।

তিনি আরও বলেন, এই সরকার জিয়াউর রহমান, বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানকে ভয় পায়; জনগণকে ভয় পায়। কারণ এরা নির্বাচনের আগের রাতে ভোট চুরি করে ক্ষমতায় এসেছে। এই সরকার ভোট চোর সরকার। সে কারণে এদের ক্ষমতায় থাকার কোনো অধিকার নেই। কিন্তু এরা আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে ব্যবহার করে জোর করে ক্ষমতায় রয়েছে।

ক্ষমতাসীনদের উদ্দেশে আমান উল্লাহ আমান বলেন, দলীয় সরকার তথা আপনাদের অধীনে দেশে কোনো নির্বাচন হবে না। তাই গণদাবি মেনে অবিলম্বে পদত্যাগ করে নির্দলীয়-নিরপেক্ষ সরকারের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করুন। অন্যথায় জনসম্পৃক্ত আন্দোলনের মাধ্যমে আপনাদের ক্ষমতা থেকে নামানো হবে। 

তিনি বলেন, গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে এই সরকারকে হটাতে আমরা রাজপথে জীবন দিতে প্রস্তুত আছি। এ সময় নেতাকর্মীদের আন্দোলনের প্রস্তুতি গ্রহণের আহ্বান জানান মহানগর উত্তর বিএনপির এই আহ্বায়ক।

সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির আহবায়ক আবদুস সালামের সভাপতিত্বে এবং দক্ষিণের সদস্য সচিব রফিকুল আলম মজনু ও উত্তরের সদস্য সচিব আমিনুল হকের সঞ্চালনায় এই সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন- বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, সেলিমা রহমান, ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু, কেন্দ্রীয় নেতা আবদুল্লাহ আল নোমান, ডা. জাহিদ হোসেন, শামসুজ্জামান দুদু, আহমেদ আজম খান, জয়নাল আবেদীন, আফরোজা খান রিতা, রুহুল কবির রিজভী, সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, খায়রুল কবির খোকন, ফজলুল হক মিলন, শহিদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, আবদুস সালাম আজাদ, দেওয়ান মো. সালাহউদ্দিন; অঙ্গসংগঠনের মধ্যে মুক্তিযোদ্ধা দলের সাদেক আহমেদ খান, মহিলা দলের আফরোজা আব্বাস, যুবদলের সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, স্বেচ্ছাসেবক দলের আবদুল কাদির ভুঁইয়া জুয়েল, ওলামা দলের মাওলানা নজরুল ইসলাম তালুকদার, তাঁতী দলের আবুল কালাম আজাদ, মৎস্যজীবী দলের রফিকুল ইসলাম মাহতাব, ছাত্রদলের কাজী রওনকুল ইসলাম শ্রাবণ প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে বিএনপির নিতাই রায় চৌধুরী, ফজলুর রহমান, আতাউর রহমান ঢালী, আব্দুল কুদ্দুস, মাহবুব উদ্দিন খোকন, শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাস, সালাহউদ্দিন আহমেদ, সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স, শামা ওবায়েদ, শিরিন সুলতানা, নাজিম উদ্দিন আলম, কামরুজ্জামান রতন, মীর সরফত আলী সপু, মোস্তাফিজুর রহমান বাবুল, আজিজুল বারী হেলাল, এবিএম মোশাররফ হোসেন, রেহানা আখতার রানু, শাম্মী আখতার, নেওয়াজ হালিমা আরলি, হেলেন জেরিন খান, আমিরুল ইসলাম খান আলিম, সেলিমুজ্জামান সেলিম, মাশুকুর রহমান মাশুক, শামীমুর রহমান শামীম, তাইফুল ইসলাম টিপু, মুনির হোসেন, সাইফুল আলম নিরব, মীর নেওয়াজ আলী, আমিরুজ্জামান খান শিমুল, রাজিব আহসান, আকরামুল হাসান, মহানগর বিএনপির প্রকৌশলী ইশরাক হোসেন, হাবিবুর রশীদ হাবিব, যুবদলের মোনায়েম মুন্না, স্বেচ্ছাসেবক দলের মোস্তাফিজুর রহমান, গোলাম সারোয়ার, আনু মো. শামীম আজাদ, সাইফুল ইসলাম ফিরোজ, কাজী ইফতেখায়রুজ্জামান শিমুল, হারুন অর রশিদ, মোর্শেদ আলমসহ অঙ্গসংগঠন ও মহানগরের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

 

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক করতোয়া এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়