বাবা-ছেলের মারামারি ঠেকাতে নিহত হলেন মেহেরুন্নেসা

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১৮, ২০২২, ০৯:৫০ রাত
আপডেট: সেপ্টেম্বর ১৮, ২০২২, ০৯:৫০ রাত
আমাদেরকে ফলো করুন

সরিষাবাড়ী (জামালপুর)প্রতিনিধি: জামালপুরে সরিষাবাড়ীতে মোবাইলকে কেন্দ্র করে বাবা-ছেলের মারামারি ঠেকাতে গিয়ে মেহেরুন্নেসা (৫০)নামে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। গত শনিবার বিকেলে উপজেলার ভাটারা ইউনিয়নের ফুলবাড়িয়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। মেহেরুন্নেসা ওই এলাকার রইস উদ্দিনের স্ত্রী।

 স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়,উপজেলা ভাটারা ইউনিয়নের ফুলবাড়িয়া এলাকায় ফরহাদ আলীর ছেলে জিহাদ মিয়া কিছুদিন পূর্বে হাফিজিয়া মাদ্রাসা থেকে কোরআনের হাফেজ হয়ে বের হন। পরে বাবার কাছে একটি মোবাইল আবদার করেন। কিন্তু বাবা ফরহাদ আলী ছেলেকে মোবাইল কিনে না দেওয়ায় শনিবার বিকেলে তাদের মধ্যে ঝগড়া হয়।একপর্যায়ে বাবা ছেলের মধ্যে মারামারি বাধে।ছেলে জিহাদ হাসান রাগের মাথায় পাশে থাকা ইটের টুকরা দিয়ে বাবাকে উদ্দেশ্য করে ঢিল ছুঁড়ে মারলে এ সময় প্রতিবেশী রহিস উদ্দিনের স্ত্রী মেহেরুন্নেসার ফরহাদ আলীকে ফিরাতে গেলে ইটের ঢিলটি এসে মেহেরুন্নেসার বুকে লাগে। এতে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন তিনি।

এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।পরে খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে য়ায়।

সরিষাবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি মুহাম্মদ মহব্বত কবির বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ জামালপুর সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

 

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক করতোয়া এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়