রাজশাহী সীমান্তে বিএসএফ’র নির্যাতনে যুবকের মৃত্যুর অভিযোগ

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২৩, ২০২২, ১০:২৩ রাত
আপডেট: সেপ্টেম্বর ২৩, ২০২২, ১০:২৩ রাত
আমাদেরকে ফলো করুন

রাজশাহী প্রতিনিধি: রাজশাহীর গোদাগাড়ী সীমান্ত দিয়ে তিন বন্ধুর সাথে কাজের সন্ধানে ভারতে যাওয়ার পথে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফএর নির্যাতনে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ভারতে যাওয়ার পথে সীমান্তে বিএসএফ হাতে ধরা পড়ার পর নির্যাতনের কারণে ওই যুবকের মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। তবে অন্য তিনজন পালিয়ে এসেছেন। নিহত যুবকের নাম আবদুর রহিম মাসুদ (১৮)। সে রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার চর আষাড়িয়াদহ ইউনিয়নের দিয়াড় মানিকচক কামারপাড়া গ্রামের বাবলু রহমানের ছেলে। গত ১৭ সেপ্টেম্বর দুপুরে রাজশাহীর মাজারদিয়াড় সীমান্ত থেকে ওই যুবককে ধরে নিয়ে যাওয়া হয়। সেদিনই সীমান্তে নির্যাতনের কারণে তার মৃত্যু হয় বলে দাবি পরিবারের।

মাসুদের বাবা বাবলু রহমান বলেন, গত ১৭ সেপ্টেম্বর বাড়িতে ৫শ’ টাকা চেয়েছিল মাসুদ। তখন তার মা পরে দিতে চেয়েছিল। এতেই সে অভিমান করে কাউকে কিছু না জানিয়ে আরও তিনজনের সাথে বেরিয়ে যায়। রাজশাহীর মাজারদিয়াড় সীমান্ত দিয়ে তারা ভারতে ঢুকছিল কাজের সন্ধানে। তখন বিএসএফ ধাওয়া দিলে অন্য তিনজন পালিয়ে আসে, মাসুদ বিএসএফ’র হাতে ধরা পড়ে।

বাবলু আরও জানান, ভারতে তাদের আত্মীয় আছে। আত্মীয়ের মাধ্যমে গত ২০ সেপ্টেম্বর খবর পান সীমান্তে ভারতের মধ্যে মাসুদের মরদেহ পড়ে আছে। এ সময় ওই আত্মীয় বাবলুর সাথে ভারতের এক পুলিশ কর্মকর্তার কথা বলিয়ে দেন। হোয়াটসঅ্যাপে ছবি বিনিময় করে মাসুদের পরিচয়ও নিশ্চিত হন। কিন্তু মরদেহটি ফেরত না দিয়ে রানীনগর থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। সর্বশেষ আজ শুক্রবার পর্যন্ত মরদেহ দেওয়া হয়নি।

বিষয়টি বর্ডার গার্ড বাংলাদেশকে (বিজিবি) জানিয়েছেন বাবলু। বিএসএফের সাথে কথা বলে বিজিবি মরদেহ ফেরত আনারও চেষ্টা করেছে। কিন্তু বিএসএফ মরদেহের কথা স্বীকার করেনি। তিনি এ বিষয়ে সবার সহযোগিতা চেয়েছেন।

গোদাগাড়ীর চর আষাড়িয়াদহ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আশরাফুল ইসলামও মাসুদের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, আমি নিজেও বিজিবি কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলেছি। কিন্তু এখনো লাশ ফেরত পাওয়া যায়নি। বিজিবির রাজশাহীর চর মাজারদিয়া সীমান্ত ফাঁড়ির কোম্পানি কমান্ডার নায়েক সুবেদার শামসুল হক বলেছেন, সীমান্তে এ ধরনের কোনো ঘটনার কথা তাদের জানা নেই।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক করতোয়া এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়