ধুনট থানা থেকে বদলিকৃত ওসির বিরুদ্ধে সাক্ষ্য গ্রহণ

প্রকাশিত: অক্টোবর ০১, ২০২২, ০৩:৫০ দুপুর
আপডেট: অক্টোবর ০১, ২০২২, ০৩:৫০ দুপুর
আমাদেরকে ফলো করুন

ধুনট (বগুড়া) প্রতিনিধি : স্কুলছাত্রী ধর্ষণ মামলার আলামত নষ্টের অভিযোগে বগুড়ার ধুনট থানা থেকে সদ্য বদলিকৃত ওসি কৃপা সিন্ধু বালার বিরুদ্ধে দ্বিতীয় দফায় সাক্ষ্য গ্রহণ করা হয়েছে। তদন্ত কমিটির সদস্যরা ওই অভিযোগের বাদি ভিকটিমের মা ও ওসি কৃপা সিন্ধু বালার কাছ থেকে অভিযোগের শুনানিসহ ৯ জন সাক্ষির সাক্ষ্য গ্রহণ করেন। 

আজ শনিবার ধর্ষণ মামলার বাদি ভিকটিমের মা এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, বগুড়ার পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে তিন সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি শুক্রবার রাত প্রায় ৮টা পর্যন্ত ওই অভিযোগের শুনানি ও সাক্ষ্য গ্রহণ করেন। 

তদন্ত কমিটিতে ছিলেন, বগুড়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম অ্যান্ড অপস) আব্দুর রশিদ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) সরাফত ইসলাম ও বগুড়া কোর্ট পরিদর্শক সব্রত ব্যানার্জী। 

মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার শৈলমারি গ্রামের মুরাদুজ্জামান (৩৮) নামে এক প্রভাষক ধুনট শহরের অফিসার পাড়ায় এক প্রভাষক দম্পতির বাসায় ভাড়া থাকতো। ওই বাসার মালিকের স্কুল পড়ুয়া মেয়েকে ৩ মার্চ থেকে ১২ এপ্রিল পর্যন্ত কয়েক দফা ধর্ষণ এবং ওই ধর্ষণের দৃশ্য ভিডিও ধারণ করে মুরাদুজ্জামান। এ ঘটনায় স্কুলছাত্রীর মা বাদি হয়ে ১২ মে মুরাদুজ্জামানের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেন। ওই দিনই মুরাদুজ্জামানকে গ্রেফতার এবং ধর্ষণের ভিডিও ধারণ করা ২টি মোবাইল ফোন জব্দ করে পুলিশ।  

ওই ধর্ষণ মামলাটি তদন্তের দায়িত্বে ছিলেন ওসি কৃপা সিন্ধু বালা। পরবর্তঅতে উদ্ধার করা মোবাইল ফোন থেকে ধর্ষণের ভিডিও মুছে ফেলার অভিযোগ ওঠে ওসির বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় ওসি কৃপা সিন্ধু বালার বিরুদ্ধে ২ আগস্ট বগুড়া পুলিশ সুপারের (এসপি) কাছে অভিযোগ দেন মামলার বাদি। অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে পুলিশ সুপার তিন সদস্যর একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেন। ওই কমিটির সদস্যরা ১৬ আগস্ট সরেজমিন তদন্ত এবং অভিযোগের সাক্ষিদের সাক্ষ্য গ্রহণ করেন। এ অবস্থায় ২৮ আগস্ট ধুনট থানার ওসি কৃপা সিন্ধু বালাকে পাবনা জেলায় বদলি করা হয়।           

তদন্ত কমিটির প্রধান বগুড়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম অ্যান্ড অপস) আব্দুর রশিদ বলেন, ওসি কৃপা সিন্ধু বালার বিরুদ্ধে অভিযোগের তদন্ত কাজ প্রায় শেষ হয়েছে। দ্রুত সময়ের মধ্যে পুলিশ সুপারের কাছে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করা হবে।  

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক করতোয়া এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়