বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে গলাকেটে হত্যা

প্রকাশিত: অক্টোবর ০১, ২০২২, ০৪:১৫ দুপুর
আপডেট: অক্টোবর ০১, ২০২২, ০৪:১৫ দুপুর
আমাদেরকে ফলো করুন

করতোয়া ডেস্ক : নরসিংদীর পলাশে বাড়ি থেকে ডেকে এনে এক মৎস্য শিকারিকে গলাকেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। হত্যার পর নিহতের বাড়ির উঠানে মৃতদেহ ফেলে রাখে তারা। শনিবার সকালে পলাশের গজারিয়া ইউনিয়নে নিজ বাড়ির উঠান থেকে নিহতের মৃতদেহ হাত, পা ও মুখ বাঁধা অবস্থায় উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহত মনির হোসেন নরসিংহারচর গ্রামের জালাল উদ্দিনের ছেলে। নিহত মনির হোসেন সৌখিন মৎস্য শিকারের পাশাপাশি তিনি বিভিন্ন ইটাখলায় মাটিকাটার কাজ করতেন।

পুলিশ ও নিহতের পরিবার জানান, গতকাল রাত সাড়ে ১২টার দিকে নিহত মনির হোসেনের মোবাইল ফোনে একটি ফোন আসে। ওই সময় তিনি তাড়াহুড়া করে বাহিরে বের হওয়ার উদ্যোগ নেয়। ওই সময় তার স্ত্রী কুহিনুর বেগম তাকে বাধা দেয়। কিন্তু স্ত্রীর বাধা উপেক্ষা করে মনির বাহিরে বের হয়ে যায়। পরে রাতে আর বাড়ি ফিরেনি।

ভোরে মনির হোসেনের বাবা ফজরের নামাজ পড়তে ঘর থেকে বের হন। তখন বাড়ির উঠানে মনিরের হাত-পা বাধা গলাকাটা মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে। পরে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠায়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিহতের স্ত্রী কুহিনুর বেগমকে থানায় আনা হয়েছে।

নিহতের ভাই মহসিন বলেন, ভাইরে মোবাইলে ফোন করে ভাইকে বাড়ি থেকে ডেকে নেয়। পরে সকালে বাড়ির উঠানে তার গলাকাটা মৃতদেহ দেখতে পাই। আমি আমার ভাই হত্যার বিচার চাই।

এ ব্যাপারে পলাশ থানার ওসি মোহাম্মদ ইলিয়াছ জানায়, হত্যার ঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। হত্যার প্রকৃত কারণ জানতে পুলিশ কাজ করছে।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক করতোয়া এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়