দুর্গাপূজা উপলক্ষে হিলি ইমিগ্রেশন চেকপোস্টে উপচেপড়া ভিড়

প্রকাশিত: অক্টোবর ০১, ২০২২, ০৫:৪০ বিকাল
আপডেট: অক্টোবর ০১, ২০২২, ০৫:৪০ বিকাল
আমাদেরকে ফলো করুন

হাকিমপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি : শারদীয় দুর্গোৎসব উপলক্ষে দিনাজপুররের হাকিমপুর হিলি ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট দিয়ে বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যে পাসপোর্টধারী যাত্রী পারাপারে উপচেপড়া ভিড়। দু’দেশের ইমিগ্রেশনে তিল পরিমাণ দাঁড়িয়ে থাকার জায়গা নেই। ঘন্টার পর ঘন্টা ইমিগ্রেশনে অপেক্ষা করতে হচ্ছে যাত্রীদের। এবার সনাতন ধর্মাম্বলী লোকজনের সংখ্যাই বেশি। শারদীয় দুর্গোৎসবের দিন যতই ঘনিয়ে আসছে যাত্রী পারাপার ততই বাড়ছে। যাত্রী পারাপার আরও বাড়তে পারে বলে মনে করছেন ইমিগ্রেশন সংশ্লিষ্টরা। যাত্রীদের পাসপোর্ট ছাড় করতে হিমসিম খাচ্ছে ইমিগ্রেশন ও কাষ্টমস কর্তৃপক্ষ।

সনাতন ধর্মাম্বলীদের সবচেয়ে বড় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা। শনিবার (১ অক্টোবর) মহাষষ্টীর মধ্যে দিয়ে শুরু হয়েছে মূল আনুষ্ঠানিকতা। আর ৫ অক্টোবর বিজয়া দশমীতে প্রতিমা বির্জনের মধ্য দিয়ে শেষ হবে শারদীয় দুর্গোৎসব। সনাতন ধর্মাম্বলীদের মতে, এবার দুর্গা আসবেন হাতিতে চড়ে আর বিদায় নিবেন নৌকায় চড়ে। 

ভারত থেকে দেশে আসা পাসপোর্ট যাত্রী জয়ন্ত চক্রবর্তী জানান, বাংলাদেশে প্রথম স্বপরিবারে আসলাম। যাবো নাটোরে পিসির বাড়িতে বেড়াতে। শুনেছি বাংলাদেশে খুব ভালো উৎসব হয় তাই পিসিদের নিমন্ত্রণে পূজো উৎসব পালন করার জন্য এসেছি। তিনি আরও জানান, তার মতো অনেকেই এবার বাংলাদেশে আত্মীয়দের সাথে পূজো উৎসব পালন করার জন্য আসছেন।

বাংলাদেশ থেকে ভারতগম পাসপোর্ট যাত্রী রেখা রানী বলেন, কাকার বাড়িতে এবার পূজার আমন্ত্রনণ পেয়ে দাদা ও মাকে সাথে নিয়ে এই প্রথম ভারতের বালুঘাটে যাচ্ছি। এবার ভারতের বিভিন্ন পূজা মন্ডপ ঘুরে ঘুরে দেখবো ও আনন্দ করবো। 

এদিকে দুর্গাপূজাকে কেন্দ্র করে হিলি চেকপোস্ট দিয়ে বেড়েছে দু’দেশে যাত্রী পারাপার। করোনা মহামারীর কারণে গেলো দুই বছর আসা-যাওয়া করতে না পারলে এবার আর সুযোগটা হাত ছাড়া করতে চান না তারা।

পূজোয় আনন্দের পাশাপাশি দেখা-সাক্ষাত হবে স্বজনদের সাথে এমনটাই বলছেন যাতায়াতকারী পাসপোর্ট যাত্রীরা। এছাড়া অনেকে যাাচ্ছেন, চিকিৎসা, ভ্রমণসহ ব্যবসা সংক্রান্ত কাজে। তবে শারদীয় দুর্গোৎসব উপলক্ষ্যে যাতায়াতকারী যাত্রীর সংখ্যাই বেশি। তাছাড়া ভারত থেকে বাংলাদেশে আসছেন পূজোর পাশাপাশি আত্মীয় স্বজনদের সাথে দেখা করতে অনেক যাত্রী। 

হিলি ইমিগ্রেশন চেকপোস্টের ওসি মো. বদিউজ্জামান বলেন, সনাতন ধর্মাম্বলীদের বড় ধর্মীয় উৎসব দুর্গাপূজা উপলক্ষে হিলি চেকপোস্ট দিয়ে পাসপোর্ট যাত্রী যাতায়াত বেড়েছে। গেলো সপ্তাহে এই রুট দিয়ে প্রতিদিন গড়ে ৪শ’ জন যাতায়াত করলেও এখন সেই সংখ্যা প্রায় ৮শ’তে দাঁড়িয়েছে। যাত্রী পারাপার আরো বাড়তে পারে। 

 

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক করতোয়া এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়