বগুড়ায় অশ্লীল ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি, স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা

প্রকাশিত: নভেম্বর ২২, ২০২২, ১২:৫০ দুপুর
আপডেট: নভেম্বর ২২, ২০২২, ১০:০০ রাত
আমাদেরকে ফলো করুন

মফস্বল ডেস্ক : বগুড়ার শেরপুরের বনমরিচা দক্ষিণপাড়া গ্রামে প্রেমিকার অন্তরঙ্গ সম্পর্কের ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেওয়ার ঘটনায় আত্মহত্যা করেছে নবম শ্রেণির ছাত্রী কনিকা খাতুন (১৪)। এ ঘটনায় ওই মেয়ের বাবা বাদী হয়ে সোমবার (২১ নভেম্বর) দুপুরে শেরপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

জানা যায়, উপজেলার গাড়িদহ ইউনিয়নের বনমরিচা দক্ষিণপাড়া গ্রামের আব্দুল করিমের মেয়ে হাপুনিয়া মহাবাগ উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী কনিকা খাতুনের সঙ্গে একই ইউনিয়নের দশমাইল দড়িপাড়া গ্রামের আব্দুল মালেকের ছেলে আব্দুল মানিকের মোবাইল ফোনে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। প্রেমের একপর্যায়ে কনিকাকে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে তার সঙ্গে বিভিন্ন সময় শারীরিক সম্পর্ক করে এবং মানিকের মোবাইলে ওই দৃশ্যগুলো গোপনে ভিডিও ধারণ করে। গত ১৭ নভেম্বর রাত ২টার দিকে কনিকাদের বাড়িতে গিয়ে শারীরিক সম্পর্ক করতে চাইলে কনিকা না করে এবং বিয়ের জন্য চাপ দেয়। এতে মানিক ক্ষিপ্ত হয়ে আগের ধারণকৃত শারীরিক মেলামেশার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেয়। এতে কনিকা সম্মান হারানোর ভয়ে ১৮ নভেম্বর বিকাল পৌনে ৪টার দিকে গ্যাস ট্যাবলেট খেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়ে। পরে পরিবারের লোকজন তাকে চিকিৎসার জন্য বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। চিকিৎসাধীন অবস্থায় ওই রাত ১২টার দিকে সে মারা যায়। এ ঘটনায় কনিকার বাবা মো. আব্দুল করিম বাদী হয়ে ২১ নভেম্বর সোমবার দুপুরে মানিকের বিরুদ্ধে শেরপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

এ ব্যাপারে শেরপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. লাল মিয়া অভিযোগের সত্যতা স্বীকার করে বলেন, তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক করতোয়া এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়