দেশের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে শেখ হাসিনার বিকল্প নেই: রাসিক মেয়র লিটন

প্রকাশিত: জানুয়ারী ২৪, ২০২৩, ০৮:১০ রাত
আপডেট: জানুয়ারী ২৪, ২০২৩, ০৮:১০ রাত
আমাদেরকে ফলো করুন

রাজশাহী প্রতিনিধি: আওয়ামীলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেছেন, সারাদেশের মত রাজশাহীতেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে অভূতপূর্ব উন্নয়ন হয়েছে। চলমান এ উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে শেখ হাসিনার সরকারের কোনো বিকল্প নেই।

তিনি বলেন, দেশে ইতোমধ্যে পদ্মাসেতু, মেট্রোরেলসহ বিভিন্ন মেগা প্রকল্পের উদ্বোধন করা হয়েছে। এই বছরে আরো মেগা প্রকল্পের উদ্বোধন হবে। আজ মঙ্গলবার (২৪ জানুয়ারি) সকালে রাজশাহী নগর ভবনে আগামী ২৯ জানুয়ারি রাজশাহীতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আগমন উপলক্ষে বিশিষ্ট নাগরিক ও সুধীজনের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি এসব কথা বলেন। মতবিনিময় সভায় প্রধানমন্ত্রীর জনসভা সফল করতে এবং রাজশাহী মহানগরীর উন্নয়ন নিয়ে বিভিন্ন পরামর্শ ও মতামত প্রদান করেন সভায় অংশগ্রহণকারী বিশিষ্টজনরা।

সভায় সভাপতির বক্তব্যে মেয়র লিটন বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। রাজশাহী মহানগরীর উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২ হাজার ৮শ’ কোটি টাকার প্রকল্প অনুমোদন দিয়েছেন। প্রকল্পের আওতায় রাজশাহী মহানগরে ব্যাপক উন্নয়ন কাজ চলছে। কর্মসংস্থান ও শিল্পায়নের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব হাইটেক পার্কের কার্যক্রম শুরু হয়েছে। বিসিক শিল্পনগরী-২ তৈরি করা হয়েছে।

এখন প্লট বরাদ্দের অপেক্ষায় রয়েছে। রাজশাহীতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব নভোথিয়েটারসহ অন্তত ৩৩টি উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়নের পথে। শিগগিরই এসব স্থাপনা উদ্বোধন করা হবে। মেয়র লিটন আরও বলেন, রাজশাহী শিক্ষানগরী হিসেবে দেশব্যাপী পরিচিত। রাজশাহীর শিক্ষাক্ষেত্রকে এগিয়ে নিতে রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় গড়ে তোলা হচ্ছে। আরো দুটি সরকারি স্কুল প্রতিষ্ঠা পাচ্ছে।

এছাড়া বিভিন্ন বিশেষায়িত স্কুল প্রতিষ্ঠা করা হচ্ছে। ইতোমধ্যে রাজশাহীতে হলিক্রস স্কুল এন্ড কলেজ যাত্রা শুরু করেছে। রাজশাহীসহ দেশের উন্নয়নে আগামী ২৯ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জনসভা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ উল্লেখ করে এ জনসভা সফলের আহ্বান জানান মেয়র লিটন।

সভায় অন্যান্যের মধ্যে আওয়ামীলীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য প্রফেসর ড. আব্দুল খালেক, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর গোলাম সাব্বির সাত্তার, সাবেক প্রতিমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপিকা জিনাতুন নেসা তালুকদার, জাতীয় শ্রমিক লীগের সভাপতি নূর কুতুবউল আলম, রাজশাহী সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ড. এবিএম শরিফ উদ্দিন, বঙ্গবন্ধু পরিষদ রাজশাহী মহানগরের সভাপতি প্রফেসর নুরুল আলম, বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেসা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য প্রফেসর ড. শামসুদ্দিন খোকন, রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. শাহ আজম শান্তনু, রাজশাহী মহানগর আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী কামালসহ বিশিষ্ট নাগরিক ও সুধীজন উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক করতোয়া এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়