আশুলিয়ায় উদ্ধার লাশের পরিচয় মিলেছে

প্রকাশিত: জানুয়ারী ২৫, ২০২৩, ০৬:১২ বিকাল
আপডেট: জানুয়ারী ২৫, ২০২৩, ০৬:১২ বিকাল
আমাদেরকে ফলো করুন

কালিয়াকৈর(গাজীপুর) প্রতিনিধি: আশুলিয়ায় উদ্ধার লাশের পরিচয়  মিলেছে। তার নাম আরিফ হোসেন। সে সিরাজগঞ্জ জেলার শাহাজাদপুর থানার বাজরা গ্রামের ওয়াজেদ আলীর ছেলে। সে কালিয়াকৈরের বিশ্বাসপাড়া এলাকায় আরএস ডাইনিং নামক একটি পোশাক রং তৈরির কারখানায় ওয়াসিং পদে চাকুরি করতো।

আশুলিয়া থানা পুলিশের প্রাথমিক ধারণা, শ্রমিক আরিফ হোসেনকে হত্যার পর আশুলিয়া থানার শিমুলিয়া ইউনিয়নের কলতাসুতি গ্রামের কেন্দ্রীয় গণকবরের ভিতর ফেলে রাখে। মঙ্গলবার দুপুরের দিকে স্থানীয় গ্রামবাসী নিহতের লাশ দেখে পুলিশে খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করেন। তবে আরিফ হোসেনের শরীরের বিভিন্ন অংশে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে বলে পুলিশ জানান। নিহতের পরিবার ও পুলিশ জানান, গত ২১ জানুয়ারি সন্ধ্যায় বিশ্বাসপাড়া এলাকার মো. অফাজ উদ্দিনের ভাড়া বাড়ি থেকে বের হয়ে আর বাসায় ফিরেনি। এ শ্রমিক নিখোঁজ হওয়ার পর পরিবারের সদস্যরা বিভিন্ন আত্নীয় স্বজনের বাড়ি ও সম্ভব্য স্থানে খোঁজা খুঁজি করে না পেয়ে কালিয়াকৈর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। মঙ্গলবার বিকেলে আশুলিয়া থানা থেকে নিহতের ফুফু সেলিনা বেগমকে ফোনে জানানো হয়, অজ্ঞাত নামা একটি লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। থানায় এসে লাশ দেখে নিশ্চিত করার জন্য পুলিশের পক্ষ থেকে অনুরোধ করেন। নিহতের ফুফু সেলিনা আক্তার বিকেলের দিকে আশুলিয়া থানায় গিয়ে আরিফ হোসেনের লাশ দেখে শনাক্ত করেন। এসময় ফুফু কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন।

নিহত আরিফ হোসেনের ফুফু সেলিনা আক্তার জানান, গত শনিবার সন্ধ্যায় বাসায় কাউকে কিছু না বলে বের হয়। বাসা থেকে বের হওয়ার পর আর বাসায় ফিরে আসেনি। আশুলিয়া থানায় এসে তার লাশ দেখতে পেলাম।

আশুলিয়া থানার ওসি (তদন্ত) মমিনুল ইসলাম জানান, দুর্বৃত্তরা শ্রমিক আরিফ হোসেনকে হত্যা করে গণকবরের ভিতরে লাশ ফেলে রেখে যায়। নিহতের লাশ উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। তিনি আরো জানান, এঘটনার সাথে জড়িতদের গ্রেপ্তারের জন্য কয়েকটি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা মাঠে কাজ করছেন।

 

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক করতোয়া এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়