৪০ বছর পুর্তি’তে কুমার বিশ্বজিৎ’র বিশেষ আয়োজন

প্রকাশিত: আগস্ট ০৪, ২০২২, ০৭:০৫ বিকাল
আপডেট: আগস্ট ০৪, ২০২২, ০৭:০৫ বিকাল
আমাদেরকে ফলো করুন

অভি মঈনুদ্দীন : ১৯৮২ সালে ‘তোরে পুতুলের মতো করে সাজিয়ে’ গানটি দিয়েই বাংলাদেশের সঙ্গীতাঙ্গনের গর্ব যাকে চিরসবুজ সঙ্গীতশিল্পী হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়, সেই প্রিয় কুমার বিশ্বজিৎ’র সঙ্গীতশিল্পী হিসেবে তারকাখ্যাতি ছড়িয়ে পড়ে। এরপর থেকে আজ অবধি তিনি বিরামহীনভাবে গান গেয়েই চলেছেন। বহু শ্রুতিমধুর গান তিনি উপহার দিয়েছেন শ্রোতা দর্শককে যা হয়ে উঠেছে সবার ভালোবাসায় বেশ জনপ্রিয়। ২০২২ কুমার  বিশ্বজিৎ’র সঙ্গীত জীবনের চল্লিশ বছর পুর্তি। আর চল্লিশ বছর পুর্তি উপলক্ষ্যে কুমার বিশ্বজিৎ বিশেষ এক উদ্যোগ নিয়েছেন। তা হলো দীর্ঘ ৪০ বছরের সঙ্গীত জীবনের সর্বাধিক আট/দশটি জনপ্রিয় গান নতুন করে দর্শককে উপহার দিতে যাচ্ছেন তিনি। কুমার  বিশ্বজিৎ বলেন,‘ যদিও বা ১৯৮২ সালের আগেই আমি গান গাইতে শুরু করেছি। কিন্তু শ্রোতা দর্শক আমাকে চিনতে শুরু করেছেন আমার প্রথম জনপ্রিয় গান তোরে পুতুলের মতো করে সাজিয়ে গানটি দিয়ে। যে কারণে আমি পেশাদার সঙ্গীতশিল্পী হিসেবে হিসেব করি ১৯৮২ সাল থেকেই। সেই হিসেবে আমার সঙ্গীত জীবনের চার দশক অর্থাৎ চল্লিশ বছর পূর্ণ হলো। আগামী অক্টোবর কিংবা নভেম্বরে বিশেষ আয়োজনের মধ্যদিয়ে আমার সঙ্গীত জীবনের সফল এই যাত্রাকে উদযাপন করা হবে। আমি এখন থেকেই বিশেষ সেই মুহুর্তটিকে উদযাপনের প্রস্তুতি নিয়েছি। আমার গাওয়া জনপ্রিয় হওয়া আট/দশটি গান নতুন সঙ্গীতায়োজনে শ্রোতা দর্শকের জন্য তৈরী করছি। বাকীটুকু না হয় সারপ্রাইজ থাকুক। অবশ্যই আমার সঙ্গীত জীবনের অবদানের নেপথ্যে যারা ছিলেন (হয়তো বা বেঁচে নেই) তাদেরকে শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করা হবে। যারা আছেন এখনো তারা এই আয়োজনে থাকবেন। সেই সাথে আমার প্রিয় প্রিয় কিছু মানুষ থাকবেন বিশেষ এই আয়োজনে। আমি জানিনা সঙ্গীত জীবনের হাফ সেঞ্চুরি বা সুবর্ণ জয়ন্তী আমি পাবো কী না। তাই যেহেতু চল্লিশ দশককে পেয়েছি, এটাই না হয় আপাতত আনন্দ নিয়ে উদযাপন করি। জীবনতো আসলে ক্ষণিকের। কে কখন চলে যায় তার কোন হিসেবে নেই। অনেক সহকর্মী’কে এরইমধ্যে হারিয়েছি। তাদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা, ভালোবাসা। জীবনে বাকী যতোটা দিন বাঁচি আনন্দ নিয়ে বাঁচতে চাই, আর সবার জন্য আরো কিছু ভালো ভালো গান উপহার দিয়ে যেতে চাই। বাংলাদেশের গানপ্রেমী মানুষের প্রতি, শ্রোতাদের প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা ভালোবাসা। কারণ তাদের কারণেই আমি আজকের কুমার  বিশ্বজিৎ’। আমার স্ত্রী, পুত্রের জন্য সবার কাছে দোয়া চাই। নিজের সুস্থতার জন্যও দোয়া চাই। ’

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক করতোয়া এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়