যুক্তরাজ্য রাশিয়ার তেল কিনছে ভারতের মাধ্যমে

প্রকাশিত: জানুয়ারী ২৫, ২০২৩, ০৩:৩৬ দুপুর
আপডেট: জানুয়ারী ২৫, ২০২৩, ০৩:৩৬ দুপুর
আমাদেরকে ফলো করুন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : রাশিয়া ইউক্রেনে হামলা করার পর রাশিয়ার ওপর বিভিন্ন নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে পশ্চিমা দেশগুলো। নিষেধাজ্ঞার মধ্যে রয়েছে জ্বালানি তেলও। পশ্চিমাদের এসব নিষেধাজ্ঞায় অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছে যুক্তরাজ্য। তবে নিজেরা নিষেধাজ্ঞা দিয়ে আবার রাশিয়ার তেলই কিনছে তারাই।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ডেইলি টেলিগ্রাফের বরাতে বুধবার (২৫ জানুয়ারি) এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, যুক্তরাজ্য রাশিয়ার তেল কিনছে ভারতের মাধ্যমে। টেলিগ্রাফ জানিয়েছে, বিপি এবং শেলের মতো প্রতিষ্ঠান যেগুলো যুক্তরাজ্যে জ্বালানি তেল সরবরাহ করে সেগুলো ভারতের বেসরকারি তেল শোধনাগার থেকে তেল আমদানি বহুলাংশে বাড়িয়েছে।

পরিবেশ আন্দোলন নিয়ে কাজ করা সংস্থা গ্লোবাল উইটনেসের তথ্য বিশ্লেষণ করে কেপ্লার জানিয়েছে, ২০২২ সালের ফেব্রুয়ারিতে রাশিয়া ইউক্রেনে হামলা করার পর ভারতের বেসরকারি কোম্পানি থেকে ১০০ লাখ ব্যারেল ডিজেল ও অন্যান্য পরিশোধিত পণ্য আমদানি করেছে যুক্তরাজ্য। অথচ ২০২১ সালে যুক্তরাজ্য মাত্র ৪০ লাখ ব্যারেল তেল ভারত থেকে আমদানি করেছিল।

রাজনীতি বিশেষজ্ঞ লুইস উইলসন টাইমস অব ইন্ডিয়াকে জানিয়েছেন, যুক্তরাজ্য ভারতের কাছ থেকে যেসব তেল কিনেছে সেগুলো রাশিয়ার জ্বালানির অংশ। তিনি বলেছেন, ‘রাশিয়ার ওপর যুক্তরাজ্যের তেল নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হয় ২০২২ সালের ৫ ডিসেম্বর। কিন্তু নিষেধাজ্ঞার যেসব ফাঁক-ফোকর রয়েছে সেগুলোর কারণে যুক্তরাজ্যে রাশিয়ার তেল আসা সম্ভব।’

তিনি আরও বলেছেন, ‘ইউক্রেনে হামলার এক বছর পরও ইউরোপের বাজারে রাশিয়ার তেল থাকার বিষয়টি নীতিনির্ধারণের ব্যর্থতা। যা যুদ্ধ আরও দীর্ঘায়িত করছে।’

তিনি জানিয়েছেন, যুক্তরাজ্য যে ভারতের মাধ্যমে রাশিয়ার তেল কিনছে এতে ‘অবৈধ’ কিছু নেই। কারণ রাশিয়ার অপরিশোধিত তেল যখন ভারতে পরিশোধন করা হয় তখন এটি ভারতের তেল হিসেবে বিবেচ্য হয়। ফলে পরিশোধিত এ তেলের প্রতিটি অণুও যদি রাশিয়া থেকে আসে, এতে কোনো সমস্যা নেই।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক করতোয়া এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়