কীভাবে বুঝবেন আপনার সন্তান ডিপ্রেশনে আছে?            

প্রকাশিত: নভেম্বর ২৪, ২০২২, ০৬:১৩ বিকাল
আপডেট: নভেম্বর ২৪, ২০২২, ০৬:১৩ বিকাল
আমাদেরকে ফলো করুন

লাইফস্টাইল: ডিপ্রেশন! যেটি এখন তরুনদের মধ্যে খুব বেশি আকারে লক্ষ্য করা যায়। আমরা আমাদের শরীরের অসুখ নিয়ে চিন্তিত হলেও মনের অসুখকে তেমন গুরুত্ব দেই না। কিন্তু এই ডিপ্রেশন থেকে তরুনদের মাঝে খুব ভয়াবহ আকারে আত্মহত্যার প্রবণতাও বেড়ে যাচ্ছে। ডিপ্রেশন থেকে যেমন মারাত্মক ধরনের অপরাধ সংগঠিত হচ্ছে, তেমনই অনেক অনৈতিক কাজও করা হচ্ছে। 

ডিপ্রেশনের লক্ষণ: 

মুড সুইং: কখনো খুশি কখনো উদাসীন। আজ বেশ আনন্দে আছে কাল মানসিক যন্ত্রণায় গুমরে মরছে। 

উদাসীনতা: জীবনের প্রতি ঘৃণা বা উদাসীনতা। সে কোন কাজেই আর তেমন মনযোগ দিবে না।
অল্পতেই রেগে যাওয়া: কিছু কেউ বলুক, ভাল বা খারাপ কোন কিছ্ইু তার ভাল লাগবে না। বিরূপ সমালোচনা করলে টেম্পার লুস করে দেয় বা মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলে। 

ভয়: অন্ধকারকে ভয়, কোনো জন্তু, পোকা, পানি, আগুনের ভয় বা অজানা আতঙ্ক। বারবার হাত-পা ধোয়া, গোসল করা, ঘ্যান ঘ্যান করা ইত্যাদি। আবার অহেতুক চিন্তা ও উত্তেজনা, একটুতেই ঘাবড়ে যাওয়া, একটুতেই ভেঙে পড়া। 
একা থাকার প্রবনতা ও কাজ করার ইচ্ছা না হওয়া: সে সবসময় একা থাকতে চাইবে। কাজ করার ক্ষমতা আছে কিন্তু ইচ্ছার অভাবে কিছুই করতে চায় না। অলসতা যেন গ্রাস করে ফেলছে। এমনকি খেলাধুলা বা পড়াশোনার ক্ষেত্রেও উৎসাহের অভাব হলে বুঝতে হবে ডিপ্রেশন হয়ে আছে। 

আত্মহত্যা: আত্মহত্যা হলো মানসিক ব্যাধি যা ডিপ্রেশন থেকে জন্ম নেয়। ডিপ্রেশনের শেষ অবস্থায় পৌঁছালেই আত্মহত্যা করতে প্ররোচিত হয়। 

ডিপ্রেশন যেকোনো বয়সে হতে পারে। ছেলেমেয়ে, ছাত্রছাত্রী, শিশু থেকে বয়স্ক সবাই ডিপ্রেশনের শিকার হতে পারে।

 

 

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক করতোয়া এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়