সাফ ফুটবল জয়ী রংপুরের স্বপ্নার গল্প (ভিডিও সহ)

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২২, ০৬:১৫ বিকাল
আপডেট: সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২২, ০৬:১৫ বিকাল
আমাদেরকে ফলো করুন

হুমায়ুন কবীর মানিক: পাকা সড়ক যেখানে শেষ সেখানেই শুরু সদ্য সাফ নারী চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা জয়ী দলের অন্যতম ১০ নম্বর জার্সিধারী ফুটবলার সিরাত জাহান স্বপ্নার বাসা। এখনকার তেজদীপ্ত নারী ফুটবলার স্বপ্নার জীবনের শুরুর গল্পটি কাটা দিয়ে ঘেরা। তারপরেও স্বপ্নার এ ধরণের অর্জনে খুশি সকলেই। সকলেরই প্রশংসায় ভাসছে স্বপ্না। স্বপ্নার জীবনের শুরুর গল্প জানালেন একদম শুরুর কোচ।


সিরাত জাহান স্বপ্নাকে নিয়ে শুরুর দিকে খেলা নিয়ে অনেকেই টিপ্পনী কেটেছিল। দিয়েছিল হতাশার সুর। এসব উপেক্ষা করেই এগিয়ে গেছে স্বপ্না। অধ্যবসায় মেধা ও পরিশ্রমকে সহায়ক শক্তি হিসেবে বেছে নেয় স্বপ্না। অনেক সময় না খেয়েই করেছে অনুশীলন। এলাকাবাসী, সাবেক জনপ্রতিনিধি আর কোচের উৎসাহে নিজেকে শানিত করেছে স্বপ্না। আগের দিনের স্মৃতি রোমন্থন করে সকলের নিকট কৃতজ্ঞতা জানালেন স্বপ্নার মা।

সদ্যপুস্কনি স্পোটিং ক্লাব থেকে দেশের বাহিরে উন্নত প্রশিক্ষণের জন্য নির্বাচিত হয়েছে আরো ৪ জন নারী ফুটবলার। এর আগে জাতীয় দলে প্রতিনিধিত্ব করেছেন অনেকেই। সিরাত জাহান স্বপ্নার মতো নারী ফুটবলার তৈরীতে দীর্ঘমেয়াদী ক্যাম্পের প্রয়োজন বলে জানালেন বর্তমান কোচ।

সব কিছু উপেক্ষা করেই আজ স্বপ্না বাংলাদেশের স্বপ্ন পুরণ করেছে। সৈয়দপুর বিমানবন্দরে অভ্যার্থনা জানাবে প্রশাসন ও এলাকাবাসী। তার সৌজন্যে অনুষ্ঠিত হবে ফুটবল কন্যাদের গ্রাম পালিচড়ায় নির্মিত শেখ রাসেল স্টেডিয়ামে প্রীতি ফুটবল ম্যাচ। সবার অংশগ্রহণে দেয়া হবে বিশাল সংবর্ধনা। সংবর্ধনার বিষয়ে খোঁজ খবর নিতে তাৎক্ষনিকভাবে সদর উপজেলা প্রশাসন ও পরিষদের পক্ষ থেকে স্বপ্নার পরিবারকে প্রদান করা হয় নগদ বিশ হাজার টাকা। সংবর্ধনাকে ঘিরে সার্বক্ষণিক খোঁজ খবর রাখছেন সদর উপজেলা চেয়ারম্যান। 

সিরাত জাহান স্বপ্নার বাড়ি রংপুর সদরের সদ্যপুস্কুরিনী পালিচড়ার জয়রাম গ্রামে। স্বপ্নার পিতা মোকছার আলী মা লিপি বেগম। স্বপ্নার বাবা একজন বর্গাচাষী। একসময় তাদের মাথা গোঁজার ঠাঁই ছিল না। স্বপ্না যেন ভাঙ্গাঘরে চাঁদের আলো। সাফ নারী চ্যাম্পিয়নশিপে ৪ গোল করে দেশের জয়ে ভূমিকা রেখেছেন স্বপ্না। 

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক করতোয়া এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়